অবশেষে ক্ষমা চেয়েছেন মোশাররফ করিম

‘জাগো বাংলাদেশ’ নামের একটি অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করছেন জনপ্রিয় অভিনেতা মোশাররফ করিম। এটির সাম্প্রতিক পর্বের আলোচনার বিষয় ছিল ধর্ষণ। সেখানেই চলে আসে পোশাক প্রসঙ্গটি। কারণ, অনেক সময়ই ধর্ষণের শিকার নারীর পোশাক নিয়ে প্রশ্ন তোলা হয়। শো-তে পোশাক নিয়ে মন্তব্য করে সমালোচনায় পড়েন মোশাররফ করিম।

সামাজিক নানা সমস্যা নিয়ে নির্মিত ‘জাগো বাংলাদেশ’-এর মাধ্যমে প্রথমবারের মতো কোনো টিভি অনুষ্ঠান উপস্থাপনা করছেন মোশাররফ করিম। তবে অনুষ্ঠানটিকে শুধু উপস্থাপনা নয়, নিজের সামাজিক দায়িত্ব মনে করছেন এই অভিনেতা। তা না হলে নাকি অনুষ্ঠানটি উপস্থাপনা করতেন না তিনি।

‘জাগো বাংলাদেশ’ নামক একটা প্রোগ্রামে নারীর পোশাক, ধর্ষণ ও বোরকা নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য ও এ নিয়ে বিতর্ক তৈরি হওয়ার পর ক্ষমা চেয়েছেন জনপ্রিয় অভিনেতা মোশাররফ করিম। শুক্রবার রাত ২টার দিকে তার ব্যক্তিগত ফেসবুক পেজে তিনি একটি স্ট্যাটাসের মাধ্যমে তার বক্তব্য অনিচ্ছকৃত ভুল দাবি করে ক্ষমা চান।মোশারফ করিম চ্যানেল২৪ এর প্রোগ্রামটিতে মন্তব্য করেছিলেন, মেয়েরা কি স্বাধীনভাবে পোশাক পড়বে না ? পোশাকের কারণেই যদি নারী নির্যাতিত হতো, তবে ৫ বছরের শিশু কেন নির্যাতিত হয়, বোরকা পরা মেয়ে কেন ধর্ষিত হয় ? তার এমন মন্তব্যে সমাজিক মাধ্যমে সমালোচনার ঝড় উঠে।

অনেকেই তার বিরুদ্ধে ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত দেয়ার অভিযোগ তোলেন। মোশারফ করিম এই মন্তব্যের ব্যাখ্যায় তার স্ট্যাটাসে বলেন, ‘আমি অত্যন্ত দুঃখিত। আমি যা বলতে চেয়েছি তা হয়ত পরিষ্কার হয়নি। আমি পোষাকের শালীনতায় বিশ্বাসী। এবং তার প্রয়োজন আছে। উল্লেখ্য, যুক্তরাষ্ট্রের আলোচিত টিভি শো ‘টেডএক্স’ ও ভারতের ‘সত্যমেভ জয়তে’ থেকে অনুপ্রেরণা নিয়ে নির্মিত হয়েছে ‘জাগো বাংলাদেশ’ নামের ওই অনুষ্ঠানটি।

ভেরিভায়েড ফেইসবুক পেইজে দেওয়া এক স্ট্যাটাসে বিষয়টি নিয়ে ক্ষমা চেয়ে মোশাররফ করিম লিখেছেন, “চ্যানেল টোয়েন্টি ফোরে আমার উপস্থাপিত একটি অনুষ্ঠানের একটি অংশে আমার কথায় অনেকে আহত হয়েছেন। আমি অত্যন্ত দুঃখিত। আমি যা বলতে চেয়েছি তা হয়ত পরিষ্কার হয়নি। আমি পোষাকের শালীনতায় বিশ্বাসী এবং তার প্রয়োজন আছে। এই কথাটি সেখানে প্রকাশ পায়নি। ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত করা আমার অভিপ্রায় না। এ ভুল অনিচ্ছাকৃত। আমি অত্যন্ত দুঃখিত। দয়া করে সবাই ক্ষমা করবেন।”

১১ মার্চ থেকে সপ্তাহের প্রতি রোববার রাত সাড়ে আটটায় চ্যানেল টুয়েন্টিফোরে দেখানো হচ্ছে অনুষ্ঠানটি। বাল্যবিবাহ, সড়ক দুর্ঘটনা, অটিজম, যানজট, মেয়েদের ঋতুকালীন সমস্যা, শিশু ধর্ষণ, বৃহন্নলা ও পরিবেশদূষণ নিয়ে নির্মিত হয়েছে প্রতিটি পর্ব।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*