রোহিঙ্গা শরনার্থীদের মাঝে চিটাগাং চেম্বারের ত্রাণ বিতরণ

রোহিঙ্গা শরনার্থীদের মাঝে চিটাগাং চেম্বারের ত্রাণ বিতরণ

বিশ্ব জনমত তৈরীতে প্রধানমন্ত্রীর ৫ দফা প্রস্তাবনা সময়োপযোগীঃ সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী

২৫ সেপ্টেম্বর দি চিটাগাং চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রি ও চিটাগাং চেম্বার সভাপতি মাহবুবুল আলম কর্তৃক কক্সবাজারের কুতুপালং-এ রোহিঙ্গা শরনার্থীদের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করা হয়। সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এমপি এবং পার্বত্য জেলা বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুর ইউ শী চিং এমপি’র উপস্থিতিতে অনুষ্ঠিত এ ত্রাণ বিতরণ কার্যক্রমে কেন্দ্রীয় আওয়ামীলীগ’র যুগ্ম সম্পাদক মোঃ আবদুর রহমান এমপি, চেম্বার পরিচালক মোঃ অহীদ সিরাজ চৌধুরী (স্বপন), কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ সভাপতি সাইফুর রহমান সোহাগ, কক্সবাজার জেলা প্রশাসনের প্রতিনিধি, চেম্বারের কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দ অংশগ্রহণ করেন।

এ সময় বক্তব্য প্রদানকালে নিউইয়র্কে অনুষ্ঠিত জাতিসংঘের ৭২তম সাধারণ সভায় চলমান রোহিঙ্গা সংকট নিরসনে বিশ্ব জনমত তৈরীতে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উত্থাপিত ৫ দফা প্রস্তাবনা অত্যন্ত বাস্তব সম্মত, সময়োপযোগী ও কার্যকর বলে উল্লেখ করেন সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এমপি। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে বাংলাদেশে আশ্রয় গ্রহণকারী কোন শরনার্থীকে অভুক্ত থাকতে দেয়া হবে না এবং শরনার্থীদের ত্রাণ বিতরণে কোন প্রকার দুর্নীতিকে প্রশ্রয় দেয়া হবে না। তিনি চিটাগাং চেম্বার ও চেম্বার সভাপতির উদ্যোগে অত্যন্ত সুশৃংখলভাবে প্রায় অর্ধ কোটি টাকার এ ত্রাণ বিতরণের ভূয়সী প্রশংসা করেন।

চেম্বার সভাপতি মাহবুবুল আলম বলেন-বাংলাদেশের ১৬ কোটি মানুষের সাথে অতিরিক্ত ৬-৮ লাখ শরনার্থীকে ভরণ পোষণের প্রধানমন্ত্রীর যে দৃঢ় প্রত্যয় তাতে সাড়া দিয়ে চিটাগাং চেম্বার রাষ্ট্রীয় ও সামাজিক দায়বদ্ধতা পালনে এগিয়ে এসেছে। মানবিক সহায়তা নিয়ে কর্পোরেট হাউস ও প্রতিষ্ঠানসমূহ এগিয়ে আসলে এ জাতীয় সংকটকে খুব সহজেই মোকাবেলা করা সম্ভব বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন। চিটাগাং চেম্বারের পাশাপাশি সভাপতি নিজেও ব্যক্তিগতভাবে রোহিঙ্গা শরনার্থীদের জন্য মানবিক সহায়তা নিয়ে এগিয়ে এসেছেন এবং সমাজের বিত্তবান, শিল্পপতি ও ব্যবসায়ীদেরও এগিয়ে আসতে উদাত্ত আহবান জানিয়েছেন। উল্লেখ্য, সামাজিক দায়বদ্ধতার অংশ হিসেব চিটাগাং চেম্বার শরণার্থী এলাকায় সোলার প্যানেলের মাধ্যমে লাইটিং, ৫০টি টয়লেট ও ৫০টি টিউবওয়েল স্থাপনের কাজ ইতোমধ্যে শুরু করেছে। এছাড়া অবস্থানরত দুই হাজার শরণার্থী পরিবারের মাঝে আজ (সোমবার) চাল, চিড়া, চিনি, আলু, ডাল, ভোজ্য তেল, ওরস্যালাইন, বালতি, হাড়ি, কম্বল এবং ৫০০ তাবু বিতরন করা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*