কোটা প্রথা বাতিলে ‘মাদার অব এডুকেশন’ উপাধি পেলেন প্রধানমন্ত্রী

চাকরিতে কোটা পদ্ধতি বাতিলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ঘোষণাকে স্বাগত জানিয়ে ‘মাদার অব এডুকেশন’ উপাধি দিলেন সাধারণ ছাত্র অধিকার পরিষদের কেন্দ্রীয় কমিটি।

বৃহস্পতিবার সকালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) ছাত্র শিক্ষক কেন্দ্রের (টিএসসি) সামনে রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশে সংবাদ সম্মেলন করে তারা এ উপাধি দেন প্রধানমন্ত্রী।এসময় সাধারণ ছাত্র অধিকার পরিষদের নেতারা বলেন, আমরা আপনার (প্রধানমন্ত্রী) উত্তরোত্তর সাফল্য কামনা করি। ছাত্র সমাজকে আপনি যে স্নেহ ও ভালবাসা দিয়ে আগলিয়ে রেখেছেন তাতে আমরা ধন্য আপনার মতো একজন নেত্রী আমরা পেয়েছি। আপনি মাদার অফ হিউম্যানিটি। কিন্তু মাননীয় নেত্রী, আপনাকে অভিমান করতে দেখলে আমাদের ভাল লাগে না। আপনি আমাদের মাননীয় নেত্রী, আপনাকে ভালবাসি।

এসময় আন্দোলনকারীরা কয়েকটি দাবি তুলেন। দাবির মধ্যে রয়েছে, সারা দেশ যাদের নামে মামলা হয়েছে সেসকল মামলা প্রত্যাহার করতে হবে ও যারা এখনো আটক আছে তাদেরকে আজকেই ছেড়ে দিতে হবে। আহতদের ক্ষতিপূরণ দিতে হবে ও তাদের খোঁজখবর নিতে হবে। দোষী পুলিশদের শাস্তি প্রদান করতে হবে। আন্দোলনকারীদেরকে কোনো হয়রানি ও ভয়ভীতি প্রদর্শন করা যাবে না।
সংবাদ সম্মেলন শেষে ছাত্র অধিকার পরিষদ আনন্দ মিছিল করে। মিছিলটি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসটি চত্বর থেকে শুরু হয়ে পুরো বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস প্রদক্ষিণ করে। এসময় শিক্ষার্থীদের উল্লাস করতে দেখা যায়।

বুধবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জাতীয় সংসদে বলেছিলেন, কেউ যখন কোটা চায় না, তখন সব কোটা বাতিল। ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠী ও প্রতিবন্ধীদের বিশেষ ব্যবস্থায় সরকারি চাকরিতে নিয়োগ দেয়া হবে। কোটা পদ্ধতির সংস্কারের দাবিতে বেশ কিছুদিন ধরে সারা দেশে আন্দোলন করছে শিক্ষার্থীরা। এ ঘটনায় পুলিশ অনেককে গ্রেপ্তার করেছে। অনেকে আহত হয়েছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here