ফেসবুকের কাছে কিছু ইউজারের তথ্য চেয়েছে বাংলাদেশ সরকার

Bangladesh Government requested facebook for some user information
ফেসবুকের কাছে গত ছয় মাসে ৬০টি অনুরোধের মাধ্যমে ৯৫টি অ্যাকাউন্ট-সম্পর্কিত তথ্য চেয়েছে বাংলাদেশ সরকার। ওই অনুরোধে সাড়া দিয়ে ৪৭ শতাংশ ক্ষেত্রে তথ্য সরবরাহ করেছে ফেসবুক। গত মঙ্গলবার ফেসবুক তাদের ট্রান্সপারেন্সি প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

ফেসবুকের ট্রান্সপারেন্সি প্রতিবেদন অনুযায়ী, ফেসবুকের কাছে বাংলাদেশ সরকারের তথ্য চাওয়ার হার অনেক বেড়েছে। গত বছরের জুলাই থেকে ডিসেম্বর মাসে চাওয়া তথ্যের পরিমাণ এযাবৎকালের মধ্যে সর্বোচ্চ। ২০১৬ সালের এপ্রিল মাসে প্রথমবারের মতো বাংলাদেশ সরকারের পক্ষ থেকে ব্যবহারকারীর তথ্য চেয়ে করা অনুরোধে সাড়া দেয় ফেসবুক কর্তৃপক্ষ। ২০১৫ সালের জুলাই থেকে ডিসেম্বর মাস পর্যন্ত তথ্য নিয়ে ওই বছরের ২৮ এপ্রিল ফেসবুক প্রতিবেদনটি প্রকাশ করে। এরপর থেকে প্রতি ছয় মাস পরপর ট্রান্সপারেন্সি প্রতিবেদন প্রকাশ করে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ।

প্রতিবেদনে কোন দেশের সরকার ফেসবুকের কাছে কী ধরনের অনুরোধ জানায়, তা তুলে ধরা হয়। তবে কোন অ্যাকাউন্টের তথ্য চাওয়া হয়, তা উল্লেখ করা হয় না।

ফেসবুকের এবারের প্রতিবেদনে বলা হয়, বাংলাদেশ সরকারের পক্ষ থেকে ফেসবুককে ৪টি অ্যাকাউন্টের তথ্য সংরক্ষণের অনুরোধ করা হলে ফেসবুক তাতে সাড়া দিয়েছে। মোট ৬০টি অনুরোধে ৯৫টি অ্যাকাউন্টের তথ্য চাওয়া হলে ৪৭ শতাংশ ক্ষেত্রে সাড়া দিয়েছে ফেসবুক। এর মধ্যে আইনি প্রক্রিয়ার অনুরোধ ১৭টি। তাতে ৩৬টি অ্যাকাউন্টের তথ্য চাওয়া হয়। ফেসবুক ২৯ শতাংশ ক্ষেত্রে তাতে সাড়া দিয়েছে। জরুরি ৪৩ অনুরোধে ৫৯টি অ্যাকাউন্টের তথ্য চাওয়া হয়।
Facebook info

এর আগে গত বছরের জানুয়ারি থেকে জুন—এ ছয় মাসে ৪৪টি অ্যাকাউন্টের তথ্য চেয়েছিল সরকার। বাংলাদেশ সরকারের অনুরোধের ক্ষেত্রে ৪৫ শতাংশ তথ্য সরবরাহ করেছিল ফেসবুকের কর্তৃপক্ষ।

এর আগে ২০১৬ সালের জুলাই থেকে ডিসেম্বর মাসে ৪৯টি অনুরোধ করেছিল বাংলাদেশ সরকার। এতে ৫৭টি অ্যাকাউন্ট-সম্পর্কিত তথ্য চাওয়া হয়েছিল। বাংলাদেশ সরকারের অনুরোধের ক্ষেত্রে ২৪ দশমিক ৪৯ শতাংশ তথ্য দিয়েছিল ফেসবুক।

ওই বছরের জানুয়ারি থেকে জুন মাসে ৯টি অ্যাকাউন্টের ব্যাপারে ১০টি অনুরোধ করা হয়েছিল। অর্থাৎ ২০১৬ সালে ফেসবুকের কাছে বাংলাদেশের সরকারের পক্ষ থেকে মোট ৫৯টি অনুরোধ করা হয়েছিল।

২০১৭ সালে ফেসবুকের কাছে বাংলাদেশ সরকারের মোট অনুরোধ দাঁড়িয়েছে ১০৪টি। মোট অ্যাকাউন্টের তথ্য চাওয়া হয়েছে ১৩৯টি। অর্থাৎ ২০১৬ সালের তুলনায় ২০১৭ সালে অনুরোধ ও অ্যাকাউন্টের তথ্য চাওয়া বাড়িয়েছে বাংলাদেশ সরকার।

ফেসবুক কর্তৃপক্ষ বলছে, বিশ্বজুড়েই ফেসবুকের কাছ থেকে তথ্য পেতে সরকারের কাছ থেকে অনুরোধ বাড়ছে। ২০১৬ সালে যেখানে মোট অনুরোধ ছিল ১ লাখ ২৩ হাজার, তা ২০১৭ সালে এসে দাঁড়ায় ১ লাখ ৬১ হাজার ২৩১টিতে। ২০১৭ সালের প্রথমার্ধের চেয়ে দ্বিতীয়ার্ধেও তথ্য চাওয়ার হার ৪ শতাংশ বেড়েছে।

ফেসবুক বলছে, তারা সেবার নিয়মনীতি মেনে ও সংশ্লিষ্ট দেশের আইন অনুযায়ী তথ্য সরবরাহ করে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here