কলকাতার নাম্বার ওয়ান নায়িকা নুসরাত জাহান লোকসভা নির্বাচনে প্রথমবার প্রার্থী হিসেবে বসিরহাট কেন্দ্র থেকে দাঁড়িয়ে বিপুল ভোটে জয়ী হন। এদিকে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি তার লোকসভা কেন্দ্রে এলেও সাক্ষাৎ পেলেন না নায়িকা ও সাংসদ নুসরাত।
ভারতীয় গণমাধ্যম সংবাদ প্রতিদিনের খবর শুক্রবার দুপুরে হেলিকপ্টারে দীর্ঘ একঘণ্টার সফরে আম্পান বিধ্বস্ত পশ্চিমবঙ্গ পরিদর্শন করেন প্রধানমন্ত্রী। এ সময় হেলিকপ্টারে তার সফর সঙ্গী ছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড়ও। ক্ষতিগ্রস্ত দুই ২৪ পরগনা, তা নিজের চোখেই দেখেন মোদি।
এরপর বসিরহাট কলেজ লাগোয়া পিছনের মাঠে তৈরি অস্থায়ী একটি হেলিপ্যাড তৈরি হয়েছিল। সেখানেই নামেন তারা। এরপর বসিরহাট কলেজেই বৈঠকে বসেন তারা। সেই সময় স্বামী নিখিলকে নিয়ে কলেজে যান সাংসদ নুসরাতও। কলেজে ঢোকার মুখে নুসরাতকে প্রথমে বাধা দেওয়া হয়। তবে তিনি নিজের সাংসদ পরিচয় দেওয়ার পর প্রবেশের অনুমতি পান। তার সঙ্গে ভেতরে ঢোকার চেষ্টা করেন নিখিলও। কিন্তু নুসরাতের স্বামী ও দুই আপ্তসহায়ককে ঢোকার অনুমতি দেওয়া হয়নি।
নুসরাতকে এসপিজির পক্ষ থেকে জানানো হয়, ভেতরে প্রশাসনিক বৈঠক হচ্ছে। কোনও রাজনৈতিক দলের বৈঠক নয়। তাই সাংসদ অন্য কাউকে সঙ্গে নিয়ে যেতে পারবেন না।
এ কথা শুনে বেশ চটে যান নুসরাত। তিনি সেখানেই বাকবিতণ্ডা শুরু করেন। কিন্তু শেষ পর্যন্ত নিখিলকে ভেতরে যাওয়ার অনুমতি না দেওয়ার ফিরে যান নুসরাতও।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here